January 23, 2018 8:11 pm

[18+ Jokes] বউটার বিশ্বাস নাই

বউটার বিশ্বাস নাই………
১ম বন্ধুঃ দোস্ত আমার বউটারে আর বিশ্বাস নাই।খালি মিথ্যা কথা কয়।কি যে করি!

২য় বন্ধুঃ কেন কি হইছে দোস্ত?

১ম বন্ধুঃ আর কইস না।কাল রাতে আমি বাড়ি ছিলাম না। সকালে আইসা দেখি বউ বাড়িতে নাই।দুপুরে ফিরতেই জিগাইলাম কই গেছিলা? কয় বোনের বাড়ি বেড়াতে গেছিলাম।

২য় বন্ধুম হুমম, তয় বিশ্বাস না করার কি হইল?

১ম বন্ধুঃ আরে তার বোনতো রাতে আমার সাথে ছিল।

টিনা গেছে হানিমুনে………
প্লিজ, ধীরে

চতুর্থ বিয়ের পর টিনা গেছে হানিমুনে।

প্রথম রাতে স্বামীকে বলছে সে, ‘প্লিজ, ধীরে, আমি কিন্তু এখনো কুমারী।’

টিনার স্বামী ঘাবড়ে গিয়ে বললো, ‘কিন্তু তুমি তো আগে তিনবার বিয়ে করেছো!’

টিনা বললো, ‘হ্যাঁ। কিন্তু শোনোই না। আমার প্রথম স্বামী ছিলেন একজন গাইনোকলজিস্ট, আর তিনি শুধু ওখানে তাকিয়ে থাকতে পছন্দ করতেন। দ্বিতীয় স্বামী ছিলেন একজন সাইকিয়াট্রিস্ট, তিনি শুধু ওখানকার ব্যাপারে কথা বলতে পছন্দ করতেন। আর আমার তৃতীয় স্বামী ছিলেন একজন গোল মেশিন — ওফ, আমি ওঁকে খুবই মিস করি!’

গরীব মেয়ে……
আরাম খান রাতের বেলা FTV তে ফ্যাশন শো দেখছিলো…

হঠাৎ ছেলে বল্টু মিয়া এসে রুমে ঢুকল…

অপ্রস্তুত আরাম খান বলল, “বেচারা গরীব মেয়েরা, কাপড় চোপড় কেনার পয়সা নাই…”

বল্টু মিয়াঃ “এর চেয়ে গরীব মেয়ে দেখতে চাইলে,আমার কাছে সিডি আছে,নিয়ে দেখতে পারো…..”

ডাক্তার সাহেব……
এক লোক মানসিক রোগের হাসপাতালে গিয়ে ডাক্তার কে বলছে
“ডাক্তার সাহেব, আমার বৌ খুবই খারাপ একটা মেয়ে। প্রত্যেক রাতে সে আবুলের মদের বারে যায় এবং একটা পুরুষ ধরে আনে।

আসল ব্যাপার আরও খারাপ, যে পুরুষই তাকে অফার করে সে সাথে সাথে রাজি হয়ে যায়। আমি পাগল হয়ে যাচ্ছি… আমি এখন কি করব বলেন আমাকে প্লিজ…”

ডাক্তার নিজে ভিতরে ভিতরে চরম উত্তেজিত হয়ে বলে-
“শান্ত হন শান্ত হন…একটা গভীর নিঃশ্বাস নেন… হ্যাঁ এবার আমাকে বলেন মদের বার টা যেন ঠিক কোন জায়গায়??.

নতুন বান্ধবী…….
এক ছেলে এবং তার নতুন বান্ধবী এক সন্ধ্যায় শহর থেকে একটু দূরে গাড়ী নিয়ে বেড়াতে বেড় হলো। গাড়ী কিছু দূর যাওয়ার পর একটা নির্জন জায়গা দেখে মেয়েটি চিৎকার দিয়ে গাড়ী থামাতে বলল। ছেলেটি গাড়ী থামিয়ে মেয়েটির দিকে তাকাল। মেয়েটি বলল-“আসলে তোমাকে বলা হয়নি যে আমি একজন কল গার্ল এবং আমার রেট ২০০০ টাকা।” ছেলেটি অবাক না হয়ে তার দিকে তাকাল এবং তার প্রস্তাবে সম্মতি দিয়ে দুজন মিলন আনন্দে কিছুক্ষণ নগ্ন দেহে আদিম খেলায় মত্ত হলো। দৈহিক প্রশান্তির পর বান্ধবীর পেমেন্ট দিয়ে কিছুটা ক্লান্তি নিয়ে ছেলেটা একটা সিগারেট ধরিয়ে আকাশের দিকে তাকিয়ে ধোঁয়া ছেড়ে কুন্ডলী পাকাতে লাগল। তার নির্লিপ্ততা দেখে বান্ধবী ছেলেটি কে বলল-“আমরা বসে আছি কেন? চলো ফিরে যাই।” ছেলেটি আকাশের দিকে তাকিয়ে বলল-“ও তোমাকে আগে বলা হয়নি আমি একজন টেক্সী ড্রাইভার, এখান থেকে শহরে ফেরার ভাড়া হচ্ছে ২৫০০টাকা।”

পরীক্ষা চলার সময়……
বায়োলজির পরীক্ষা চলছে। প্রশ্ন এসেছে “মেয়েদের প্রজননতন্ত্র আঁকাও এবং তা বর্ণনা করো”

পরীক্ষা চলার সময় এক মেয়ে হঠাৎ তার দুই পায়ের মাঝে তাকাল

সাথে সাথে এক ছেলে চিৎকার দিয়ে বলে উঠলো
“স্যার ওই মেয়েটা নকল করছে, আমি নিজের চোখে দেখেছি!!!”

কে কে বুঝছেন গো???

Comments