January 22, 2018 12:20 pm

Bangla Jokes

এক ঘুষিতে নাক ফাটিয়ে দেবো…

ডাক্তারঃ ভয়ের কিছু নেই। চট করে করে আপনার দাঁতটা তুলে নিব।
রোগীঃ না না ডাক্তার সাহেব, আমার ভয় করছে। প্লিজ ডাক্তার সাহেব, আমি জন্ত্রনায় মারাই যাব, বড্ড ভয় করছে।
ডাক্তারঃ ঠিক আছে, আপনি খানিকটা ক্যান্ডি খেয়ে নিন। দেখবেন সাহস বেড়ে গেছে।
রোগীঃ ক্যান্ডি খেয়ে নিলো।
ডাক্তারঃ কি এখন সাহস বেড়েছে তো?
রোগীঃ নিশ্চয়ই বেড়েছে, এখন দেখি কোন শালা আমার দাঁত তুলতে আসে? দাতে হাত লাগাবেন তো এক ঘুষিতে নাক ফাটিয়ে দেবো !!

হাঁপানি….

বাংলা ক্লাসে শিক্ষক এক ছাত্রকে দাঁড় করিয়ে জিজ্ঞাসা করলেন- বলতো “ভাতের অভাব” এটা কি হবে?
ছাত্রটি জবাব দিতে না পারায় শিক্ষক তাকে অনেক বেত্রাঘাত করলেন এবং বললেন “ভাতের অভাব – হাভাত”।অতঃপর বিজ্ঞান ক্লাসে বিজ্ঞানের শিক্ষক ঐ ছাত্রটিকে জিজ্ঞাসা করলেন পানির অভাবে কি হয়?
তখন ঐ ছাত্রটি ঝটপট করে জবাব দিল, স্যার হাঁপানি হয়।
গরীবের আর পায়খানা …

রোগীঃ ডাক্তার সাহেব এই কয়দিন ধরে আমার খুব পায়খানা হচ্ছে। আমার অবস্থা খুবই খারাপ।
ডাক্তারঃ আচ্ছা, একটু ধৈর্য ধরুন আমি আপনাকে পরিক্ষা করে দেখছি। এখন বলুনতো আপনার পায়খানা কেমন?
রোগীঃ ডাক্তার সাহেব, কি যে বলবো গরীব মানুষের পায়খানা আর কেমন, দুটো বাঁশের লাঠি আর সামনে ছালা।

আমাদের শেভিং রেজারটা …

স্বামী এবং স্ত্রী খুব ঝগড়া করছে। এমন সময় স্ত্রী স্বামীকে রেগে-মেগে গিয়ে বলছে … … … “তুমি শুধু আমার বাড়ি, আমার টিভি, আমার ফ্রিজ, আমার সন্তান বল কেন???”
তুমি বলতে পারো না যে, “আমাদের বাড়ি, আমাদের টিভি, আমাদের ফ্রিজ, আমাদের সন্তান … ”
ঠিক তখনই স্বামী কি যেন খুঁজছিল। তাই দেখে স্ত্রী জিজ্ঞাসা করলো- কি খুজছো?
স্বামী তখন আমতা আমতা করে বলল- “ইয়ে মানে আমাদের শেভিং রেজারটা … ”

শিক্ষকের ওয়াদা….

শিক্ষকঃ তোমরা ওয়াদা কর যে, কখনোও সিগারেট পান করবে না।
ছাত্ররাঃ ওকে স্যার পান করবো না।
শিক্ষকঃ মেয়েদের পিছে পিছে ঘুরবেনা।
ছাত্ররাঃ ওকে স্যার ঘুরবো না।
শিক্ষকঃ ওদের কখনোও ডিস্টার্ব করবে না।
ছাত্ররাঃ ওকে স্যার, ডিস্টার্ব করবো না।
শিক্ষকঃ দেশের জন্য জীবন কোরবান করবে।
ছাত্ররাঃ অবশ্যই স্যার, এই রকম জীবন দিয়ে আর করবইবা কি !!!

নাতনীর বাসর…..

নাতিনীর বিয়ে হল । নাতনী যাতে বাসর রাতে ভয় না পায় সেজন্য নানী পাশের ঘরে ঘুমাতে গেলেন।
যথারীতি বাসর রাতে নাতনী ও নাত জামাই ঘরে ঢুকল।
কিছুখন পর … … …
মশারী খাটনোর জন্য নাতনী উঠে দাড়াতেই খাটের স্ট্যান্ডের সাথে প্রচন্ড জোরে মাথায় বাড়ি খেয়ে নাতনী বলে উটল … … ওও মাথা গেল রে
তখন পাশের রুম থেকে নানী বলে উঠল আল্লাহ আল্লাহ কর। মাথা যখন গেছে বাকিটাও যাবে।

আশরাফুলের সঙ্গে থাকতে চাই…..

এক দম্পতির বিবাহবিচ্ছেদ হল। তখন তাদের নাবালক মেয়েটিকে জিজ্ঞেস করা হল, তুমি কার সঙ্গে থাকতে চাও?
মায়ের সঙ্গে?
মেয়েটি বলল, না, মা বড্ড পেটায়!!
তাহলে বাবার সঙ্গে?
না, বাবাও ভীষণ পেটায়!
তাহলে তুমি কার সঙ্গে থাকতে চাও?
তখন মেয়েটি বলল, আমি ক্রিকেটার আশরাফুলের সঙ্গে থাকতে চাই। ও ভারী ভালোমানুষ, চাইলেও পেটাতে পারে না!!

Comments